ইসরাইল-হামাস যুদ্ধে যোগ দিচ্ছে রাশিয়া ওয়াগনার! হিজ়বুল্লাকে ভয়ঙ্কর অস্ত্র দিচ্ছে!

Photo of author

By S.G

ইসরায়েল-হামাস সংঘর্ষ নতুন মোড় নিল। ফিলিস্তিনি সশস্ত্র সংগঠন হামাসকে সমর্থন দিতে এবার আসরে আসছে পুতিনের ‘নিজস্ব বাহিনী’ হিসেবে পরিচিত ওয়াগনার গ্রুপ। ওয়াগনার হামাসের পাশে থাকা হিজবুল্লা গ্রুপকে সাহায্য করতে প্রস্তুত। পেন্টাগন ইতিমধ্যে ওয়াগানার গ্রুপ হামাস ও হিজবুল্লার পাশে থাকার বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

পেন্টাগনের দুই উচ্চপদস্থ আধিকারিক আমেরিকার সংবাদপত্র ‘ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল’কে জানিয়েছেন, লেবাননের ইরান-সমর্থিত জঙ্গি গোষ্ঠী হিজ়বুল্লাকে রাশিয়ার ‘এসএ-২২ গ্রেহাউন্ড’ তুলে দিতে চলেছে ওয়াগনার। ‘এসএ-২২ গ্রেহাউন্ড’ একটি বিমান বিধ্বংসী ভূমি থেকে আকাশ ক্ষেপণাস্ত্র।

পশ্চিমি দুনিয়ার কাছে ‘প্যান্সার-এস১’ নামে পরিচিত রাশিয়ার এই ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা হাতে পেলে হিজ়বুল্লা যোদ্ধারা রাডারের সাহায্যে ইজ়রায়েলি যুদ্ধবিমানের গতিবিধি আগাম আঁচ করে পাল্টা হামলা চালাতে পারবেন।

‘এসএ-২২ গ্রেহাউন্ড’-এ ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে হামলা চালানোর লঞ্চার এবং রাডার রয়েছে। এটি মানবচালিত এবং মানববিহীন— উভয় বিমানের উপর হামলা চালিয়ে সেগুলি ধ্বংস করতে সক্ষম।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদনে পেন্টাগনের মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল প্যাট রাইডারকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে যে হামাস-ইসরায়েল যুদ্ধে ওয়াগনার গ্রুপের জড়িত থাকার বিষয়টি “খুবই উদ্বেগজনক”। তবে ‘SA-22 Greyhound’ হিজবুল্লাহর হাতে পৌঁছেছে কি না তা এখনও নিশ্চিত করে বলা সম্ভব নয়। তবে ওয়াগনার ও হিজবুল্লাহর তৎপরতার ওপর নজর রাখছে আমেরিকা।

লেবাননের ইরান সমর্থিত জঙ্গি গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ। এটি ইসরায়েলের উত্তর সীমান্তে ইসরায়েলি বাহিনীর সাথে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। অন্যদিকে, হামাস দক্ষিণ গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীর সঙ্গে মোকাবিলা করছে। এবার সেই দুই গ্রুপকে সমর্থন দিতে আসছে ওয়াগনার গ্রুপ।

Leave a Comment