এখন IAS অফিসার! বিশ্বকাপ খেলেছেন শচীন-সৌরভের সঙ্গে, কে এই ক্রিকেটার?

Photo of author

By S.G

প্রাক্তন এবং বর্তমান ভারতীয় ক্রিকেটারদের বেশিরভাগই তাদের পড়াশোনায় এগিয়ে যেতে পারেননি। কেউ কোনোভাবে স্কুল পাস করেছে, কেউ বা কলেজের মুখ কেউ দেখেনি। কিন্তু তাদের মধ্যে ব্যতিক্রমও রয়েছে। শুধু স্কুল, কলেজ বা উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত নয়, একজন ভারতীয় ক্রিকেটার আছেন যিনি একজন IAS অফিসার। ভারতীয় দলে যোগ দেওয়ার আগে তিনি সিভিল সার্ভিস পরীক্ষা পাস করেন। UPSC সিভিল সার্ভিসেস পরীক্ষাকে দেশের অন্যতম কঠিন পরীক্ষা হিসেবে বিবেচনা করা হয়। যাকে সাধারণত লোকেরা আইএএস পরীক্ষা বলে। প্রতি বছর হাজার হাজার পরীক্ষার্থী UPSC দেয়, কিন্তু মাত্র কয়েকজন সফল হয়। সেই কয়েকজনের মধ্যে একজন ক্রিকেটারও আছেন। তিনি সৌরভ গাঙ্গুলি, শচীন টেন্ডুলকরদের সতীর্থ ছিলেন। এক সময় বিশ্বকাপে দেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন।

অময় খুরাশিয়া ভারতীয় ক্রিকেটের একমাত্র আইএএস অফিসার। 1972 সালে মধ্যপ্রদেশে জন্মগ্রহণ করেন, খুরাশিয়া 17 বছর বয়সে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক করেন। কিন্তু জাতীয় দলের জার্সি পরার আগে তিনি দেশের অন্যতম বড় পরীক্ষা, UPSC সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। পাশ করার পর সেন্ট্রাল এক্সাইজ এবং কাস্টমস ডিপার্টমেন্টেও কাজ শুরু করেন। কিন্তু অময়ের প্রথম প্রেম ছিল ক্রিকেট। পড়াশোনার পাশাপাশি মন দিয়ে ক্রিকেট খেলতেন। মধ্যপ্রদেশের হয়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট খেলা অময় খুরাশিয়ার জাতীয় দলে খেলার স্বপ্ন পূরণ হয় ১৯৯৯ সালে। খুরাশিয়া অভিষেক ম্যাচেই হাফ সেঞ্চুরির ইনিংস খেলেন।

১৯৯৯ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পেপসি কাপে খেলার সুযোগ পান অময়। প্রথম ম্যাচে ৪৫ বলে ৫৭ রানের ইনিংস খেলেন। তবে নিজের ক্রিকেট ক্যারিয়ারকে সেভাবে সাজাতে পারেননি তিনি। প্রথম ম্যাচের পর সেভাবে নজর কাড়তে পারেনি খুরাশিয়া। ভারতীয় ক্রিকেটের সঙ্গে অময় খুরাশিয়ার যাত্রা ছিল খুবই ছোট। সৌরভ গাঙ্গুলি, শচীন টেন্ডুলকরদের সাথে 1999 বিশ্বকাপে দেশের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন। তিনি 2001 সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তার শেষ ম্যাচ খেলেছিলেন। মাত্র 12টি ওডিআই ম্যাচ খেলেই আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যায়। এই ১২ ম্যাচে রান সংখ্যা ১৪৯!

অমে খুরাশিয়ার জন্য বিকল্প পথ খোলা ছিল। অল্প সময়ের মধ্যেই ক্রিকেট ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যাওয়ায় মধ্যপ্রদেশের এই ক্রিকেটার পুরনো জীবনে ফিরে যান। তিনি বর্তমানে ভারতীয় শুল্ক ও কেন্দ্রীয় আবগারি বিভাগে কর্মরত। কিন্তু ক্রিকেট তাকে কিছুতেই ছাড়েনি। IPL তারকা রজত পাতিদার ও আবেশ খানের মেন্টর এবং কোচ ছিলেন। খুরাশিয়া এই ধরনের তরুণ ক্রিকেট প্রতিভাদের তাদের ক্যারিয়ার গড়তে সাহায্য করেন।

Leave a Comment